ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তে ১৪টি গরু উদ্ধার গ্রামবাসীদের, পাচারের অভিযোগ

ভারত-বাংলাদেশ সীমান্ত দিয়ে গরু পাচার রুখে দিল গ্রামবাসীরা। বৃহস্পতিবার রাতে ১৪টি গরু সহ পাচারকারীদের পথ আটকে দেয় গ্রামের লোকজনেরা। জলপাইগুড়ি জেলার রাজগঞ্জ ব্লকের সুখানি অঞ্চলের দালালপাড়া এলাকার ঘটনা।

স্থানীয়রা জানাচ্ছেন, এদিন রাত ন’টা নাগাদ কয়েকজন অপরিচিত ব্যক্তি গরুগুলি নিয়ে সীমান্তের উদ্দেশ্যে যাচ্ছিলেন। গ্রামের লোকজনেরা দেখতে পেয়ে তাদের পথ আটকে দেন। গরুগুলিকে ফেলে রেখেই পাচারকারীরা পালিয়ে যান।

গ্রামবাসীরা জানালেন, রাতে এই ঘটনার কিছু পরেই ঘটনাস্থলে হাজির হন বিএসএফের দুই আধিকারিক। যদিও বিষয়টি অস্বীকার করেছেন স্থানীয় ১৯৫ নং বিএন বিএসএফ কর্তৃপক্ষ। তাদের বক্তব্য অনুযায়ী, এদিন রাতে বিএসএফ-এর তরফে কেউ ওই গ্রামে যায়নি। গ্রামবাসীরাও তাদের কিছু জানায়নি।

গ্রামবাসীরা আরও জানালেন, দীর্ঘদিন ধরেই গ্রামের উপর দিয়ে বাংলাদেশে গরু পাচার করা হচ্ছে। পাচারের পথে গ্রামের চা বাগান, গাছপালা এবং বসতি বাড়ির ক্ষতি করে দুষ্কৃতীরা। এরই সঙ্গে নদীপথ দিয়ে গরু পাচার হচ্ছে অহরহ। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, গত ২০ আগস্ট স্থানীয় এলাকার সাহু নদী থেকেই ১৬টি গরুর দেহ উদ্ধার করা হয়। গ্রামবাসীরা সেখানেও বাংলাদেশে পাচারের অভিযোগ তোলেন। পুরো বিষয়টি নিয়ে এলাকায় রীতিমতো চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। যদিও স্থানীয় প্রধান এবং রাজগঞ্জ থানা বিষয়টি নিয়ে মুখ খুলতে চায়নি।