১৫ জুন পর্যন্ত রাজ্যে কার্যত লকডাউন, জানালেন মুখ্যমন্ত্রী

রাজ্যে বর্তমান কার্যত লকডাউনের মেয়াদ বৃদ্ধি পেল ১৫ জুন পর্যন্ত। এখন যা যা বিধিনিশেধ রয়েছে সেই অনুযায়ীই চলতে হবে আগামী ১৫ তারিখ পর্যন্ত। বৃহস্পতিবার বিকেলে নবান্নে সাংবাদিক বৈঠকে জানান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মুখ্যমন্ত্রী ঘোষণা করেন, আগামী ১৫ জুন পর্যন্ত সব বিধিনিষেধ জারি থাকবে রাজ্যে। যদিও, এটাকে লকডাউন বলতে মুখ্যমন্ত্রী বারণ করেছেন। তিনি জানান, যে যে বিধিনিষেধ জারি ছিল সেগুলিই জারি থাকবে। বিধিনিষেধের ফলে রাজ্যে সংক্রমণ কিছুটা কমেছে। তাই এই সিদ্ধান্ত।

কি কি বন্ধ?

লোকাল ট্রেন-বাস-মেট্রো বন্ধ
অপ্রয়োজনীয় ট্যাক্সি-অটো চলাচল বন্ধ
রাজ্যের ভেতরে পন্য পরিবহণ
জরুরী দপ্তর ছাড়া সমস্ত সরকারি-বেসরকারি অফিস বন্ধ
শিল্প-কারখানা, উৎপাদন কেন্দ্র বন্ধ
ধর্মীয় এবং রাজনৈতিক সমাবেশ বন্ধ
বন্ধ থাকবে মদের দোকান
হোটেল, রেস্তরাঁ বন্ধ থাকবে
শপিং মল, সিনেমা হল, জিম-স্পা, বিউটি পার্লর, সুইমিং পুল, স্পোর্টস কমপ্লেস বন্ধ
স্কুল-কলেজ সহ সমস্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এবং অঙ্গনওয়াড়ি কেন্দ্র বন্ধ
পার্ক, চিড়িয়াখানা, স্যাঙ্কচুয়ারি বন্ধ
রাত ৯টা থেকে ভোর ৫টা পর্যন্ত বাইরে বেরনো নিষিদ্ধ

কি কি খোলা?

স্বাস্থ্য, ল অ্যান্ড অর্ডার, সংবাদমাধ্যম, আদালত, অটোমোবাইল সহ জরুরি পরিষেবা
বিদ্যুৎ, পানীয় জল, ই-কমার্স, পেট্রোল পাম্প, সাফাই, দমকল পরিষেবা চালু
খাবার-পণ্য-ওষুধ হোম ডেলিভারি করা যাবে
বাজার ও খুচরো ব্যবসা, অন্যান্য সব দোকান পাট সকাল ৭টা থেকে ১০টা
(দুধ, ডিম, মাংস, সবজি, ফল ও মুদির দোকান ইত্যাদি সবই ৭টা থেকে ১০টা)
মিষ্টির দোকান সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৫টা
শাড়ি-গয়নার দোকান দুপুর ১২টা থেকে ৩টা
ওষুধ ও চশমার দোকান স্বাভাবিক সময়েই খোলা থাকবে
ব্যাঙ্ক (সকাল ১০টা থেকে ২টো পর্যন্ত), এটিএম খোলা থাকবে
খাদ্য সামগ্রী, অক্সিজেন এবং স্বাস্থ্য সম্বন্ধীয় পরিবহণ চালু থাকবে
শর্তসাপেক্ষে চা বাগান, চটকল চালু থাকবে